Update #26 ·

Update on February 10, 2013

আপিলে সমান সুযোগের প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় যাচ্ছে

যুদ্ধাপরাধের বিচারে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের ক্ষেত্রে আসামি ও রাষ্ট্রপক্ষের জন্য সমান সুযোগ রেখে আইন সংশোধনের প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় উঠছে সোমবার। 

আব্দুল কাদের মোল্লার যাবজ্জীবন সাজার রায়ের পর দণ্ডের মাত্রা বাড়াতে আপিলের সুযোগ না থাকার বিষয়টি উঠে আসায় এবং রাজধানীর শাহবাগে টানা পাঁচ দিন ধরে বিক্ষোভ চলার প্রেক্ষাপটে সরকার এই উদ্যোগ নিলো।

আইন মন্ত্রী শফিক আহমেদ রোববার আইন সংশোধন বিষয়ক এক বৈঠকের পর সাংবাদিকদের জানান, আপিলের বিষয়ে আইন সংশোধনের প্রস্তাবটি নীতিগত অনুমোদনের জন্য সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে তোলা হবে।

"সংসদের চলতি অধিবেশনেই এ সংশোধন বিল আকারে পাস করা হবে।"

১৯৭৩ সালের আইনে সরকারের আপিলের কোনো সুযোগ ছিল না। পরে ২০০৯ সালে আইন সংশোধন করে এতে খালাসের রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের সুযোগ যোগ হয়।

এখন যে কোনো রায়ের বিরুদ্ধে আসামির মতো সরকার বা প্রসিকিউশনেরও আপিলের সুযোগ রাখার বিধান যোগ করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

মন্ত্রী জানান, আপিলের পর ৯০ দিনের (প্রথম দফায় ৬০ দিন, পরে আরো এক মাস) মধ্যে এ কার্যক্রম  নিষ্পত্তির বিধানও প্রস্তাবে থাকছে।

"দুপক্ষের সুবিধার্থেই আইনে সংশোধন আনা হচ্ছে। আইন সংশোধনের পর শুধু প্রসিকিউশন নয়, ক্ষতিগ্রস্তরাও আপিলের সুযোগ পাবেন", বলেন শফিক আহমেদ।



to comment