Back to We demand the Trial of all listed War Criminals of The Liberation War of Bangladesh

কাদের মোল্লার মামলায় রিভিউ করার সুযোগ আছে কিনা ?

O0

কিছু প্রশ্নের উত্তর :

১. কাদের মোল্লার মামলায় রিভিউ করার সুযোগ আছে কিনা। থাকলেও সেটা কয়দিনের মাঝে করতে হবে?
• রিভিউ করার সুযোগ নিয়ে বিতর্ক হচ্ছে। সংবিধানের ১০৫ অনুচ্ছেদের শর্ত এবং ৪৭ক(২) অনুচ্ছেদ বিবেচনায় নিলে রিভিউর সুযোগ নেই। তবে এ নিয়ে মত-দ্বিমত তৈরি হয়েছে। রিভিউ করার সুযোগ থাকলে তা পূর্ণাঙ্গ রায়ের সার্টিফায়েড কপি পাওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে করতে হয়।

২. রিভিউ করতে হলে কি ডিটেইলড অর্ডারটা লাগবে না এই সর্ট অর্ডার এর উপরেই রিভিউ হবে।
• রিভিউ করতে পূর্ণাঙ্গ রায়ের সার্টিফায়েড কপি লাগে।

৩. রিভিউ যদি করে তবে রিভিউ এর শুনানি আবার কতদিন ধরে হবে?
• রিভিউ'র শুনানির কোনো নির্দিষ্ট সময়সীমা নেই। বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় ৩ কার্যদিবসের রিভিউ শুনানি হয়েছিল।

৪. রিভিউ আবেদন যদি খারিজ করে দেয় তাহলে এর পর থেকে কয়দিনের মাঝে কার্যকর করতে হবে?
• রিভিউ আবেদন খারিজের দিনেও রায় কার্যকর হতে পারে। মূলত রায় কার্যকরের সময়সীমা শুরু হয় মৃত্যু পরোয়ানা জেল কর্তৃপক্ষের কাছে পৌছানোর সঙ্গে। ২১ থেকে ২৮ দিনের মধ্যে রায় কার্যকর করতে হয়। এ প্রসঙ্গে বলা যেতে পারে ২৭ জানুয়ারি ২০১০ বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় রিভিউ আবেদন খারিজ করে দেয় আপিল বিভাগ। সেদিন রাতেই রায় কার্যকর হয়।

৫. রিভিউ যদি না করা যায় সেইক্ষেত্রে কি আর কতদিন লাগতে পারে রায় কার্যকর হতে?
• রিভিউ না করা গেলে পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশের পর তার সার্টিফায়েড কপি বিচারিক আদালত অর্থাৎ ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হবে। ট্রাইব্যুনাল মৃত্যু পরোয়ানা জারি করবে। তা জেল কর্তৃপক্ষের কাছে পৌছার ২১ থেকে ২৮ দিনের মধ্যে রায় কার্যকর করতে হবে। ফলে পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হওয়া না পর্যন্ত সময়সীমা গণনা করে বলা কঠিন।

৬. ডিটেইলড অর্ডারটা কবে দিবে?
• পূর্ণাঙ্গ রায় কবে দেওয়া হবে তা আপিল বিভাগের এখতিয়ার। প্রাসঙ্গিকভাবে বলা যায় বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় ১ মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ রায় দেওয়া হয়েছিল। ২০০৯ সালের ১৯ নভেম্বর আপিল বিভাগের রায় ঘোষিত হয়েছিল। পূর্ণাঙ্গ রায়ের সার্টিফায়েড কপি প্রকাশিত হয়েছিল ১৭ ডিসেম্বর।

3 comments

to comment